বিবিধ

এক সূত্রে গাঁথা হল জীবন। জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ইমন চক্রবর্তী এবং সুরকার নীলাঞ্জন ঘোষ শুরু করতে চলেছেন নতুন জীবন। সোমবার আংটি বদল হল দুজনের। বেশ কিছুদিন ধরেই ইমনের বিয়ের খবর ভাসছিল। অনেকের মুখেই ইমনের পাত্র নিয়ে নানা জল্পনা শোনা গিয়েছিল। ইমনের বিয়ের খবরে দারুণ খুশি তাঁর ফ্যানেরা। খুব শীঘ্রই তাঁরা বিয়েও করে নিতে চান। তবে করোনার আবহের কথা মাথায় রেখেছেন তাঁরা। জানা গিয়েছে, আগামী বছর শুরুর দিকেই চার হাত এক হবে তাঁদের। বর্তমানে জি বাংলা সারেগামাপা-অনুষ্ঠানে সংগীতগুরুর আসনে দেখা যাচ্ছে ইমনকে। এছাড়া ইমনের ইউটিউব চ্যানেলে ২১ অক্টোবর পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর ছেলে অনঞ্জনের সঙ্গে একটি নতুন গান মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে।

Swarnali Goswami 19.10.2020

মহাকাশে একটি সম্পূর্ণ অন্যরকম ব্ল্যাক হোল বা কৃষ্ণ গহ্বরের সন্ধান দিলেন ভারতীয় তরুণ বিজ্ঞানী ডা. করণ জানি। এর ফলে মহাকাশ সম্পর্কে গোটা ধারণাই এবার বদলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এই ব্ল্যাক হোল বা কৃষ্ণ গহ্বরটি সূর্যের থেকেও ১৪২ গুণ বড়। এই কৃষ্ণ গহ্বরটির বয়স ৬০০ কোটি বছর বলে জানা গিয়েছে। এই অতিকায় ব্ল্যাক হোলটি মহাকাশ ও কৃষ্ণ গহ্বর সম্পর্কে অ্যাস্ট্রোফিজিস্টদের এতদিনের ধারণা বদলে দেবে বলে মনে করা হচ্ছে। ভারতীয় সময় হিসেবে বুধবার সন্ধেয় এই আবিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন ডা, করণ জানি ও তাঁর টিম। উল্লেখ্য, গত বছর মার্চ মাসে LIGO এবং Virgo গ্র্যাভিটেশনাল তরঙ্গের মাধ্যমে গত বছর মে মাসে এই ব্ল্যাক হোলটি খুঁজে পান ডা. করণ জানি ও তাঁর টিম। এর সম্পর্কে ঘোষণা করার আগে আরও এক বছর ধরে গবেষণা চালান করণ। তিনি জানান, ‘আমরা সব সময় মনে করতাম যে কৃষ্ণ গহ্বর হয় সূর্যের থেকে ১০০ গুণ ছোট হয়, আর নয়তো ১০০০ গুণ বড় হয়। কিন্তু এই ব্ল্যাক হোলটি সূর্যের থেকে ১৪২ গুণ বড়। এর বয়সও সূর্যের চেয়ে বেশি।’

Swarnali Goswami 03.09.2020

সুশান্তের দুই ঘনিষ্ঠ, বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানি এবং বাড়ির কেয়ারটেকার দীপেশ সাওয়ান্ত রাজসাক্ষী হতে চান বলে সূত্রের খবর। আজ সিবিআই ম্যারাথন জেরার সম্মুখীন হয়েছেন রিয়া চক্রবর্তী। তার মাঝেই এই খবর আবার রহস্য ঘনীভূত করল বা ঘটনার মোড় ঘুরিয়ে দিল সুশান্ত মৃত্যু রহস্যের তা বলাই যায়। সিবিআইয়ের সূত্রের খবর, এদিন বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদই তাঁরা দুজন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের রাজসাক্ষী হতে চান বলে জানিয়েছেন। এই ঘটনাকে স্বাভাবিকভাবেই বড়সড় সাফল্য বলেই মনে করছে সিবিআই। সিবিআই দলের তদন্তকারী অফিসার নূপূর প্রসাদ আলাদা আলাদা করে রিয়া চক্রবর্তী, সিদ্ধার্থ পিঠানি, স্যামুয়েল মিরান্ডা, শৌভিক চক্রবর্তী এবং দীপেশ সাওয়ান্তকে জেরা করে ফের একসঙ্গে জিগ্গাসাবাদের পরিকল্পনা করেছেন বলে সূত্রের খবর।
সিবিআই সূত্রের খবর, সুশান্ত সিং রাজপুতের সাইকোলজিকাল অটপসি বা মনস্তাত্ত্বিক ময়নাতদন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গোয়েন্দারা। এই পদ্ধতিতে সুশান্তের দৈনন্দিন জীবনযাপনের খুঁটিনাটি তথ্য, তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট, পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে বাক্যালাপ, সব কিছু খুঁটিয়ে দেখা হবে। উল্লেখ্য, সিদ্ধার্থ পিঠানি এবং দীপেশ সাওয়ান্ত ৮ থেকে ১৪ জুন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাড়িতেই ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। এমনকী সুশান্তের দেহও তাঁরাই প্রথম উদ্ধার করেছিলেন। সে কারণে ইতোমধ্যেই দীপেশ ও সিদ্ধার্থকে বেশ কয়েকবার জেরাও করেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সিবিআই মনে করছে, দীপেশ ও সিদ্ধার্থর কাছ থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে।

Swarnali Goswami 28.08.2020

মোটর বাইক চালানোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু নিয়মাবলী জারি করল কেন্দ্রীয় সরকার। মোটরবাইক চালানোর ক্ষেত্রে এবার থেকে বেশ কয়েকটি নতুন নিয়ম মানতে হবে চালক এবং সওয়ারিদের৷ নতুন গাইডলাইন অনুযায়ী, পিছনের আসনে বসা ব্যক্তির জন্য বাইকের দু’ পাশেই পাদানি রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে৷ তার সঙ্গে বাইকের চালকের আসনের পিছনে একটি হ্যান্ড হোল্ড রাখতে হবে৷ পিছনের আসনে যিনি বসবেন, তাঁর নিরাপত্তার কথা ভেবে এই নির্দেশিকা জারি হয়েছে৷ এছাড়াও পিছনের আসনে বসা ব্যক্তি বিশেষত মহিলাদের কাপড় যাতে চাকায় জড়িয়ে না যায় তার জন্য বাইকের পিছনের চাকার বাঁদিকের অংশের অন্তত অর্ধেক ঢেকে রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে৷ বাইকে হাল্কা কন্টেনার লাগাতে হবে বলেও গাইডলাইনে জানানো হয়েছে৷ এর দৈর্ঘ্য ৫৫০ মিলিমিটার, চওড়ায় ৫১০ মিলিমিটার এবং উচ্চতা ৫০০ মিলিমিটারের বেশি হওয়া চলবে না৷ যদি বাইকের পিছনের আসনে কোনও কন্টেনার লাগানো হয়, তাহলে চালক ছাড়া কেউ বাইকে বসতে পারবেন না৷

Swarnali Goswami 24.07.2020

আগামী ৫ অগাস্ট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে রাম মন্দিরের ভূমি পুজো হওয়ার কথা৷ বহু দিনের দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে শুরু হতে চলেছে রাম মন্দিরের নির্মাণ কাজ৷ জানা গিয়েছে, আগামী ৩ অগাস্ট থেকেই ভূমি পুজো উপলক্ষে তিন দিন ধরে বৈদিক অনুষ্ঠান শুরু হবে মন্দির নির্মাণস্থলে৷ ৪ তারিখেও একটি বিশেষ পুজো হবে৷ এর পর ৫ অগাস্ট বেলা ১২.১৫ মিনিট নাগাদ শুরু হবে ভূমি পুজো৷ ভূমি পুজোর সময় মন্দিরের গর্ভগৃহে পাঁচটি রুপোর ইট বসানোর কথা৷ সূত্রের খবর, নিজের হাতে প্রথম রুপোর ইট বসিয়ে মন্দিরের ভূমি পুজোতে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী৷ হিন্দু পুরাণ অনুযায়ী, এই পাঁচটি ইটকে পাঁচটি গ্রহের প্রতীক হিসেবে ধরা হয়৷ ইতিমধ্যেই বিশ্ব হিন্দু পরিষদের প্রস্তাব অনুযায়ী মন্দিরের নকশা তৈরি করা হয়েছে৷ প্রাথমিক ভাবে প্রস্তাবিত মন্দির প্রায় ৩৮ হাজার বর্গফুট এলাকা জুড়ে তৈরি হওয়ার কথা থাকলেও এখন তা বাড়িয়ে ৭৬ থেকে ৮৪ হাজার বর্গফুট করা হয়েছে৷ করোনার আবহেও ভূমি পুজো উপলক্ষে তিনশো অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে বলে খবর৷ সেই তালিকায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছাড়াও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতরা রয়েছেন৷ এর পাশাপাশি একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকেও ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে৷

Swarnali Goswami 20.07.2020

পৃথিবীর একেবারে কাছে আসছে ধূমকেতু নিওওয়াইজ (NEOWISE)। কলকাতার আকাশেও তার রূপের তেজে মুগধ করবে সকলকে। ১৪ জুলাই থেকে সূর্য ডুবলেই কলকাতার আকাশে জ্বলজ্বল করবে ধূমকেতু নিওওয়াইজ। খালি চোখেই দেখা যাবে বিরল এই মহাজাগতিক ঘটনা। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এতদিন সূর্য ওঠার আগে NEOWISE-র দেখা পাওয়া যেত। সূর্যাস্তের পর কলকাতায় উত্তর-পশ্চিম আকাশে প্রতিদিন প্রায় ২০ মিনিট এই ধূমকেতু দেখা যাবে। তাও আবার খালি চোখে। ১৫ জুলাই থেকে প্রতিদিন ২ ডিগ্রি করে উপরে উঠতে শুরু করবে নিওওয়াইজ। ২৭ মার্চ নাসার উপগ্রহ নিওওয়াইজ-এ প্রথম ধরা দেয় এই ধূমকেতু। সূর্যকে বিদায় জানিয়ে আস্তে আস্তে পৃথিবীর দিকে এগিয়ে আসছে সে। বৈজ্ঞানিক নাম- C/2020-F3 হলেও ধূমকেতুটির ডাকনাম নিওওয়াইজ। ২২ জুলাই পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে থাকবে ধূমকেতুটি। সেদিন পৃথিবী থেকে দূরত্ব হবে প্রায় ১০ কোটি ৩০ লক্ষ কিলোমিটার। ৩০ জুলাই ১ ঘণ্টারও বেশি সময় ধূমকেতুটি দেখতে পাওয়া যাবে৷ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ওইদিন সপ্তর্ষি মণ্ডলের নীচে প্রায় ১ ঘণ্টা এই ধূমকেতুকে দেখতে পাওয়া যাবে। মহাকাশ বিজ্ঞানীদের মতে, এই শতকের সবচেয়ে উজ্জ্বল ধূমকেতু নিওওয়াইস।

Swarnali Goswami 13.07.2020

জার্মানির ম্যাস্ক প্ল্যাঙ্ক ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীরা বহুদিন ধরে এক গবেষণা চালিয়ে তার থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানালেন সূর্যে চলা ক্রিয়াকলাপ নাকি ধীরে ধীরে হ্রাস পাচ্ছে ৷ এর ফলে নাকি ক্রমশ তেজ কমছে সূর্যের ৷ আর সূর্যের দ্রুত তেজ কমে যাওয়ায় বিপদ ডেকে আনতে চলেছে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীদের দল ৷ বিজ্ঞানের ভাষায় সূর্যের এই তেজ ঘাটতির নাম সোলার মিনিমাম ৷ এই ‘সোলার মিনিমাম’-এর প্রভাব পড়তে পারে পৃথিবীতেও। খরা, শীত, অগ্ন্যুৎপাত বা ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পের ঘটনা বেড়ে যেতে পারে পৃথিবীতে।

Swarnali Goswami 19.05.2020