বাছাই করা সেরা খবর

১) দূর্গা পুজোর আগেই ফুলবাগানে মেট্রো পরিষেবা শুরু হয়ে যাবে বলে আশা করছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। গত জুন মাসেই ফুলবাগান মেট্রো স্টেশন পরিদর্শন করেন কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি। সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে ফুলবাগান অবধি ১.৬ কিলোমিটার মেট্রো পথ পরিদর্শন করেন। এন এফ জোনের কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি অভয় কুমার রাই’য়ের পরিদর্শনের এক সপ্তাহের মধ্যেই মেট্রো স্টেশনে যাত্রী পরিষেবা চালুর অনুমতি মিলে গিয়েছিল। কিন্তু ফুলবাগান মেট্রো স্টেশনের কাজ পুরো শেষ না হওয়ায় এখন মেট্রো চালু করা সম্ভব হচ্ছেনা বলে জনিয়েছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। তাই এখন কিছুদিন অপেক্ষা করতেই হবে।

২) সোমবারই এক চাঞ্চল্যকর দাবি সামনে এল। শুক্রে ফসফিন গ্যাসের সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। আর তা থেকেই তাদের দাবি, পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের গ্রহটিতে প্রাণ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। সম্প্রতি হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ এবং চিলির অ্যাটাকামা মরুভূমি থেকে শক্তিশালী টেলিস্কোপ ব্যবহার করে শুক্রের দিকে চোখ রাখা হয়েছিল। খতিয়ে দেখা হয় শুক্রের আপার ক্লউড ডেক। সুইনবার্ন বিশ্ববিদ্য়ালয়ের গবেষক অ্যালান ডাফি উৎফুল্ল এই গবেষণা নিয়ে। তাঁর কথায়, “পৃথিবীর বাইরেও যে প্রাণ থাকতে পারে, তার সবচেয়ে আকর্ষণীয় প্রমাণ এবার পাওয়া গেল। আমাদের সবদিক গুলি খতিয়ে দেখার চেষ্টা করতে হবে।” পাশাপাশি এই গবেষণার প্রধান মুখ,কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ ফিজিক্স অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোনমির গবেষক জানে গ্রেভিস বলছেন, ফসফরাসের উপস্থিতি মানেই প্রাণ রয়েছে এমনটাও বলা যায় না। হয়তো প্রাণের জন্য জরুরি অন্য অনেক পদার্থই নেই। পরবর্তী গবেষণায় কী প্রমাণিত হয়, সেটাই দেখার।

৩) রাজ্যে আমফান আছড়ে পড়ার পরপরই মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন, সুন্দরবন জুড়ে পাঁচ কোটি ম্যানগ্রোভের চারা লাগানো হবে। কারণ, ম্যানগ্রোভই পারে সুন্দরবনকে প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা করতে। সেইমতো জেলা প্রশাসন, বন দপ্তরের উদ্যোগে সুন্দরবনের বাদাবনে ম্যানগ্রোভ চারা লাগানোর কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে সোমবার গোসাবার কুমিরমারি গ্রাম পঞ্চায়েতে সারষা নদীর চরে স্থানীয় মহিলাদের সঙ্গে রীতিমতো কাদায় নেমে ম্যানগ্রোভের চারা লাগালেন রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহযোগিতায় সুন্দরবনের নদী-খাঁড়িতে মাছ-কাঁকড়া ধরতে যাওয়া মৎস্যজীবীদের হাতে রান্নার গ্যাস ও ওভেন তুলে দেন মন্ত্রী। সেই সঙ্গে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যজীবীদের গ্রামের পুকুরে দেশি মাছ চাষ করার জন্য তিন কেজি করে মাছের পোনা দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s