প্রধানমন্ত্রীকে অগ্নিমূল্য বাজার দর নিয়ে চিঠি লিখলেন মুখ্যমন্ত্রী

অত্যাবশ্যকীয় পণ্যসামগ্রীর অগ্নিমূল্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে এই বিষয়ে সরাসরি চিঠি লিখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। সাধারণ মানুষের দুর্দশার কথা ভাবতে মোদীকে অনুরোধ জানান মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার নবান্নে প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকে তাঁর অভিযোগ, কেন্দ্র মূল্যবৃদ্ধি রোধে আইনি নিয়ন্ত্রণের যাবতীয় ক্ষমতা রাজ্যের থেকে কেড়ে নিজেরা হাত গুটিয়ে বসে আছে। নয়া কৃষি আইনে আর অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নয় আলু–পেঁয়াজ ৷ ফলে আকাশছোঁয়া দাম হলেও তা নিয়ন্ত্রণে কোনও ক্ষমতা নেই রাজ্যের হাতে ৷ তাঁর যুক্তি, হয় কেন্দ্র অত্যাবশ্যকীয় সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধি নিজেরা নিয়ন্ত্রণ করুক, নয়তো রাজ্যের হাতে পুরোনো আইনি ক্ষমতা ফিরিয়ে দিক। চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেছেন, অনেক অসাধু ব্যবসায়ীরা বেশি করে আলু-পেঁয়াজ মজুত করে কৃত্রিমভাবে এই সব প্রয়োজনীয় জিনিসের অভাব তৈরি করছেন। কিন্তু রাজ্যের হাতে কোনও ক্ষমতাই এখন কেন্দ্র রাখেনি তা নিয়ন্ত্রণ করার। সোমবার সকালে শহরের বিভিন্ন বাজারে টাস্ক ফোর্স ও এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ ঘুরে, আলু-পেঁয়াজের দোকানে দোকানে গিয়ে দাম নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েছে কিন্তু তাতে তেমন লাভ হবে বলে মনে হয়না। পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে পদক্ষেপও করেছে নবান্ন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে জারি হয়েছে সরকারি নির্দেশিকা। নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, পাইকারি ব্যবসায়ীরা ২৫ মেট্রিক টন এবং খুচরো ব্যবসায়ীরা ২ মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ মজুত করতে পারবেন না। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই নির্দেশ বলবৎ থাকবে। তবে উল্লেখনীয়ভাবে আলুর দাম কিছুটা নামতে শুরু করেছে বলে ব্যবসায়ীদের দাবি। পাইকারি বাজারে প্রতি কুইন্টালে আলুর দাম কমেছে ১০০ টাকা। কালীপুজোর পর আলুর দাম আরও নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে দাবি হিমঘর মালিকদেরও।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s